প্রচ্ছদজাতীয়স্মার্ট বাংলাদেশের লক্ষ্য হচ্ছে যেখানে কেউ পিছিয়ে থাকবে না: স্পিকার

স্মার্ট বাংলাদেশের লক্ষ্য হচ্ছে যেখানে কেউ পিছিয়ে থাকবে না: স্পিকার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর দেশের দারিদ্রের হার শতকরা ৪০ ভাগ থেকে ২১ ভাগে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশের লক্ষ্য হচ্ছে যেখানে কেউ পিছিয়ে থাকবে না। পিছিয়ে পড়া সকল জনগোষ্ঠী-নারী-শিশুদের নিয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলা হবে।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে মাদারীপুর সার্কিট হাউজ ভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর দেশের দারিদ্রের হার শতকরা ৪০ ভাগ থেকে ২১ ভাগে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন। হতদরিদ্র মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য ব্যাপক কার্যক্রম সারাদেশে পরিচালিত হচ্ছে। যারা এখনো দারিদ্রসীমার নিচে রয়েছে তাদের নানা রকম ভাতা দেওয়া হচ্ছে, যা আগামীতে আরও ব্যাপকভাবে পরিচালনা করা হবে। বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ এবং মোবাইল ফোনের মাধ্যমে শিক্ষা ভাতা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। তৃণমূল পর্যায়ে দারিদ্র বিমোচনের যে কার্যক্রম চলছে তা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে।

শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, আমাদের দেশে বর্তমানে কৃষকরা ১০ টাকায় ব্যাংক একাউন্ট খুলতে পারে। দেশের ব্যাংকিং সেবার মধ্যে যাতে কৃষকদের অন্তর্ভুক্ত করা যায় তার জন্য এই ধরনের পরিকল্পনা।

নারীদের উন্নয়নে সরকারের নেওয়া পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে স্পিকার বলেন, ‘নারীদের সার্বিক উন্নয়নের জন্য সরকার ব্যাপক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তাদের দক্ষতা যাচাই, ক্ষুদ্র ও মাঝারি নারী উদ্যোক্তাদের আরও এগিয়ে আনা, তাদের জামানতবিহীন ঋণ দেওয়াসহ আইটি সেক্টরে এগিয়ে আনা যায় তা নিয়ে সরকার নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সংসদের চিফ হুইফ নূর-ই আলম চৌধুরী, মাদারীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শাজাহান খান, সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্য তাহমিনা বেগম, জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পুলিশ সুপার মাসুদ আলম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুনির চৌধুরী ও অন্যান্যরা।

বিডিজবস.লিঙ্ক'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সর্বশেষ